যদু বংশীয় হৃদিকের পুত্র। কৃষ্ণের অনুগত হওয়া সত্বেও দুর্যোধনের অনুরোধে ইনি কৌরবদের পক্ষে যোগ দিয়েছিলেন। কৌরব ও পাণ্ডবদের শক্তি বিচারের সময়ে, ভীষ্ম এঁকে যোদ্ধা হিসেবে অতিরথ (শ্রেষ্ঠ শ্রেনীর যোদ্ধা) বলে গণনা করেছেন। যুদ্ধশেষে কৌরব পক্ষের যে তিন বীর জীবিত ছিলেন, তাঁরা হলেন অশ্বত্থমা, কৃপ এবং কৃতবর্মা। মহাযুদ্ধের পঁয়ত্রিশ বছর পরে যদুবংশীয় বীররা যখন পানমত্ত হয়ে নিজেদের মধ্যে হানাহানি করছেন, তখন নিদ্রিত পাণ্ডব ও পাঞ্চাল বীরদের হত্যাকাণ্ডে অশ্বত্থমাকে সাহায্য করেছিলেন বলে সাত্যকি কৃতবর্মাকে তিরস্কার করেন। কৃতবর্মাও সাত্যকির অন্যায়ভাবে ভুরিশ্রবা-বধের প্রসঙ্গ উত্থাপন করেন। বচসা চরমে উঠলে সাত্যকি অসি দিয়ে কৃতবর্মার শিরশ্ছেদ করেন।