ইক্ষাকুবংশীয় রাজা বৃহদশ্বের পুত্র। মহর্ষি উতঙ্কের অনুরোধে উনি মধু-কৈটভের পুত্র ধুন্ধুকে বধ করেন। ব্রহ্মার বরে ধুন্ধু - দেব, দানব, যক্ষ, গন্ধর্ব, নাগ ও রাক্ষসের অবধ্য ছিলেন। ধুন্ধু উতঙ্কের আশ্রমের নিকটস্থ এক বালুকাপূর্ণ সমুদ্রে লুকিয়ে থাকতেন আর আশ্রমে এসে উপদ্রব করতেন। কুবলাশ্ব তাঁর একুশ হাজার পুত্র ও অসংখ্য সৈন্য নিয়ে বালুকাসমুদ্র খনন করে নিদ্রিত ধুন্ধুর দেখা পেলেন। ধুন্ধু জাগরিত হয়ে মুখাগ্নি দ্বারা কুবলাশ্বের পুত্রদের দগ্ধ করলেন। উতঙ্কের অনুরোধে ধুন্ধু কুবলাশ্বের দেহে প্রবেশ করেছিলেন বলে, কুবলাশ্ব যোগবলে ধুন্ধুর মুখাগ্নি নির্বাপিত করতে পারলেন। তারপর ব্রহ্মাস্ত্র প্রয়োগ করে ওঁকে বধ করলেন। এই ঘটনার পর থেকে কুবলাশ্ব ধুন্ধুমার নামে পরিচিত হন।