রাক্ষস যিনি ভৃগুর স্ত্রীকে (যাঁর নামও পুলমা ছিল) হরণ করার চেষ্টা করেছিলেন। পুলোমা রাক্ষস ভৃগুর সঙ্গে বিয়ে হবার আগে ভৃগুপত্নী পুলোমাকে মনে মনে বরণ করেছিলেন। কিন্তু পুলোমার বাবা ভৃগুর সঙ্গে বিধিমতে কন্যার বিয়ে দেন। রাক্ষস পুলোমা ভৃগুর অবর্তমানে ভৃগুর বাড়িতে ঢুকে ঘরে জ্বলন্ত আগুনকে জিজ্ঞেস করেন - যেহেতু ভৃগু-পত্নীকে বিয়ের আগে তিনি সহচারিণী হিসেবে বরণ করেছিলেন, সুতরাং তিনি হরণ-যোগ্যা কিনা। অগ্নিদেব ভয়াবহ সঙ্কটে পরে বলেন, যদিও ওঁর সামনেই বিধিমতে ভৃগুর বিয়ে হয়েছে, কিন্তু তা সত্বেও পূর্ব-বরণ অনুয়ায়ী তিনি পুলোমার পত্নী হতে পারেন। এই কথা শুনে রাক্ষস পুলোমা ভৃগুপত্নী পুলোমাকে হরণ করেন। কিন্তু হরণের পথে পুলোমার গর্ভস্থ সন্তান চ্যবন গর্ভচ্যূত হলে, সেই তেজোময় শিশুকে দেখে ভষ্ম হয়ে যান।