ভীষ্মকের পুত্র ও রুক্মিনীর ভ্রাতা। বিদর্ভের সিংহাসনের অধিকারী ছিলেন। এঁকে পরাস্ত করে কৃষ্ণ রুক্মিনীকে হরণ করেন। কৃষ্ণের কাছে পরাজিত হয়ে রাজধানী কুন্দিনাপুর থেকে পালিয়ে একটি নতুন জনপদ ভোজকতের পত্তন করে সেখানে রাজত্ব করেন। কিন্নরশ্রেষ্ঠ দ্রুম্মের কাছে রুক্মী ধনুর্বেদ শিক্ষা করেছিলেন। বিজয় নামে ওঁর ঐন্দ্রধনু অর্জুনের গাণ্ডীব ও কৃষ্ণের শার্ঙ্গ ধনুর তুল্য ছিল। রুক্মী পাণ্ডব ও কৌরব দুপক্ষকেই বলেছিলেন যে, ওঁরা যদি ভয় পেয়ে থাকেন,তাহলে রুক্মী ওঁদের সহায় হবেন। এই কথায় পাণ্ডব ও কৌরব - দুপক্ষই ওঁর সাহায্য প্রত্যাখ্যান করেছিলেন।