মহাতপা কুর্ণিগর্গের মানসী কন্যা। কুর্ণিগর্গ দেহত্যাগ করলে সুভ্রূ তপস্যাব্রত নিলেন। বহুকাল তপস্যা করে যখন তিনি বৃদ্ধা ও শক্তিহীন, তখন তিনি পরলোকে যাওয়া স্থির করেলেন। নারদ বললেন যে, অবিবাহিত কন্যার স্বর্গবাস হয় না। তখন সুভ্রূ ঋষিদের কাছে গিয়ে বললেন যে, যিনি ওঁকে বিবাহ করবেন তাঁকে উনি ওঁর তপস্যার অর্ধফল দেবেন। গালবের পুত্র প্রাক্‌শৃঙ্গবান ওঁকে বললেন যে, সুভ্রূ যদি এক রাত্রি ওঁর সঙ্গে বাস করতে সন্মত হন তাহলে উনি সুভ্রূকে বিবাহ করবেন। সুভ্রূ তাতে সন্মত হয়ে বিবাহের পর সুন্দরী তরুণী হয়ে এক রাত্রি পতির সঙ্গে ছিলেন। প্রভাত হলে প্রাক্‌শৃঙ্গবানের কাছ থেকে বিদায় নিয়ে তিনি সুরলোকে চলে যান।